তুরস্কের সীমান্ত ব্যবহার করে সন্ত্রাসীদের অস্ত্র দেয়া হচ্ছে: রাশিয়া

সিরিয়ায় যেসব সন্ত্রাসী গোষ্ঠী সক্রিয় রয়েছে তাদেরকে সমর্থন যোগানোর বিষয়ে তুরস্ক শুরু থেকেই কাজ করে আসছে। তুরস্ক এসব সন্ত্রাসী গোষ্ঠীকে প্রশিক্ষণ ও অস্ত্র দিচ্ছে এমন খবর বহুবার প্রকাশিত হয়েছে। এছাড়া, সিরিয়ায় আসা-যাওয়ার জন্যে সন্ত্রাসীদেরকে নিরাপদ রাস্তা করে দিয়েছে তুরস্ক।
55d1e0f3c4618864088b45bd

‘সিরিয়ায় তৎপর সন্ত্রাসীদের অস্ত্র সরবরাহ করার জন্য তুরস্ক সীমান্ত ব্যবহার করা হচ্ছে ‘, জেনেভায় জাতিসংঘ মানবাধিকার পরিষদে দেয়া বক্তৃতায় রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ একথা বলেছে। ল্যাভরভ তুরস্ক ও সিরিয়ার ম্যধবর্তী সীমান্ত বন্ধ করার আহ্বান জানিয়েছে।

ল্যাভরভ এ বিষয়ে বিস্তারিত বলতে গিয়ে বলে ,’ যেহেতু মানবিক ত্রাণবাহী কার্গোর ভেতরেও অস্ত্র পাঠানো হচ্ছে, এ অবস্থায় খুবই জরুরি একটি কাজ হচ্ছে বাইরে থেকে সন্ত্রাসীদের রসদ আসা বন্ধ করা। এজন্য সিরিয়া-তুরস্ক সীমান্ত বন্ধ করে দেয়া গুরুত্বপূর্ণ, কারণ এ সীমান্ত দিয়ে সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলো অস্ত্রের চালান পাচ্ছে ‘।

সে আরো বলেছে ,সিরিয়ায় যেসব সন্ত্রাসী গোষ্ঠী সক্রিয় রয়েছে তাদেরকে সমর্থন যোগানোর বিষয়ে তুরস্ক শুরু থেকেই কাজ করে আসছে। তুরস্ক এসব সন্ত্রাসী গোষ্ঠীকে প্রশিক্ষণ ও অস্ত্র দিচ্ছে এমন খবর বহুবার প্রকাশিত হয়েছে। এছাড়া, সিরিয়ায় আসা-যাওয়ার জন্যে সন্ত্রাসীদেরকে নিরাপদ রাস্তা করে দিয়েছে তুরস্ক ।

প্রসঙ্গত ,২০১৫ সালের মে মাসে তুরস্কের জমহুরিয়াত নামক পত্রিকা খবর দিয়েছিল , তুর্কি গোয়েন্দা সংস্থা কয়েকটি ট্রাকে করে ১,০০০ মর্টারের গোলা, শত শত গ্রেনেড লঞ্চার/লাউন্চার এবং ৮০,০০০ রাউন্ডের হাল্কা ও ভারি অস্ত্রের গুলি সিরিয়ার সন্ত্রাসীদের জন্য নিয়ে যাচ্ছিল। তুরস্কের নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা এসব ট্রাককে চ্যালেঞ্জ করলে সরকার অস্ত্র পাঠানোর কথা অস্বীকার করে এবং চ্যালেঞ্জ করা সেনাদেরকে পরে উল্টো মামলা দিয়ে আটক করা হয়।









Leave a Reply