পর্যালোচনা: জাতিসংঘের মানবাধিকার পরিষদের বার্ষিক বৈঠক ও মধ্যপ্রাচ্য

বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলে মানবাধিকার পরিস্থিতি যখন শোচনীয় হয়ে আছে, ঠিক এমন একটা সময় আজ জাতিসংঘ মানবাধিকার পরিষদের বৈঠক শুরু হতে চলেছে । বিশেষ করে ইয়েমেনে সৌদি আগ্রাসনের ফলে সেখানকার মানবাধিকার পরিস্থিতি বিপর্যস্ত হয়েছে এবং সেখানে মানবীয় বিপর্যয় অব্যাহত রয়েছে।
b2465d85-ded7-4cae-8650-e68de2234379_16x9_788x442
সৌদি বাহিনীর নির্বিচার বিমান হামলায় গতকাল (রোববার) ইয়েমেনের রাজধানী সান-আ’র একটি বাজারে অন্তত ৩২ জন বেসামরিক নাগরিক নিহত ও ৪১ জন আহত হয়েছে।

জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি মুন ইয়েমেনে সৌদি হামলার কঠোর নিন্দা জানিয়েছে।একইসাথে সৌদি সরকার ইয়েমেনে হামলা বন্ধ করতে অস্বীকার করায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বান কি মুন। সে গতকালের ওই হামলার দ্রুত ও নিরপেক্ষ তদন্ত অনুষ্ঠানের দাবি জানিয়েছে।

গত ২৬ মার্চ থেকে সিরিয়ায় নির্বিচার হামলা চালিয়ে যাচ্ছে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট। মানবাধিকার সংস্থাগুলোর হিসেব মতে এইসব হামলায় অন্তত ৮ হাজার ৩০০ বেসামরিক সিরীয় নিহত এবং ১৬ হাজারেরও বেশি আহত হয়েছে। নিহতদের মধ্যে ২ হাজার ২৩৬ শিশু এবং ৭০০’রও বেশি নারী রয়েছে।

জেনেভায় জাতিসংঘ মানবাধিকার পরিষদের বার্ষিক বৈঠকের প্রাক্কালে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল বা এআই সৌদি আরবে অস্ত্র রফতানি নিষিদ্ধ করার দাবি জানিয়েছে।

সৌদি আরবে পাঠানো অস্ত্র যুদ্ধাপরাধ এবং মানবাধিকার লঙ্ঘনে ব্যবহার করা হচ্ছে বলে সংস্থাটি উল্লেখ করেছে।কেবল ২০১৫ সালে সৌদি আরবের কাছে আড়াই হাজার কোটি ডলারের অস্ত্র রফতানি করা হয়েছে।

অক্সফাম নামক মানবাধিকার সংস্থার বলেছে -‘ যন্ত্রনাদায়ক হলেও সত্যি যে ব্রিটেন ও ফ্রান্সের মত সরকারগুলো সৌদি সরকারের কাছে সবচেয়ে বেশি প্রাণঘাতী অস্ত্রগুলো বিক্রি করছে ‘ ।









Leave a Reply