বিশ্বের এক নাম্বার অস্ত্রক্রেতা সৌদিআরব

২০১৫ সালে সৌদি সরকার শুধুমাত্র অস্ত্রখাতে ব্যায় করেছে ৩১৬ কোটি ১০ লাখ ডলার । সৌদি ২০১১ গত পাঁচ বছরে বিশ্বের দ্বিতীয় প্রধান অস্ত্র আমদানিকারক দেশ ছিল। ২০০৬ – ২০১০ সাল পর্যন্ত সময়ের চেয়ে গত পাঁচ বছরে সৌদি আরব অস্ত্র আমদানি বাড়িয়েছে শতকরা ২৭৫ ভাগ।
Saudi-Forces-3-600x372
দ্যা স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইনিস্টিটিউট ( এসআইপিআরআই ) এর দেয়া তথ্যানুসারে এশিয়া এবং মধ্যপ্রাচ্য অস্ত্র আমদানি তালিকায় শীর্ষে রয়েছে। অন্যদিকে রপ্তানি তালিকায় বরাবরের মতই শীর্ষে রয়েছে আমেরিকা ও রাশিয়া ।

এসআইপিআরআই এর পরিসংখ্যান অনুসারে ২০১৫ সালে অস্ত্র আমদানির ক্ষেত্রে সারা বিশ্বের মধ্যে সৌদি আরব প্রথম অবস্থানে রয়েছে। এর পরের অবস্থান রয়েছে ভারত। তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে অস্ট্রেলিয়া। তারপরের অবস্থানে রয়েছে পর্যায়ক্রমে মিশর, সংযুক্ত আরব আমিরাত, ইরাক, চীন, ভিয়েতনাম, গ্রিস ও পাকিস্তান। অর্থাত ভারতের চির প্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তান এ তালিকায় দশম স্থানে রয়েছে।

২০১৫ সালে সৌদি সরকার শুধুমাত্র অস্ত্রখাতে ব্যায় করেছে ৩১৬ কোটি ১০ লাখ ডলার । সৌদি ২০১১ গত পাঁচ বছরে বিশ্বের দ্বিতীয় প্রধান অস্ত্র আমদানিকারক দেশ ছিল। ২০০৬ – ২০১০ সাল পর্যন্ত সময়ের চেয়ে গত পাঁচ বছরে সৌদি আরব অস্ত্র আমদানি বাড়িয়েছে শতকরা ২৭৫ ভাগ। এছাড়া, ২০১৫ সালে আরব জোটের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাত অস্ত্র আমদানি বাড়িয়েছে শতকরা ৩৫ ভাগ, কাতার ২৭৯ ভাগ এবং মিশর ৩৭ ভাগ।

অন্যদিকে তালিকায় অস্ত্র আমদানিতে দ্বিতীয় ভারতের কাছে সবচেয়ে বেশি (১৯৬ কোাটি ৪০ লাখ ডলার) অস্ত্র বিক্রি করেছে রাশিয়া। এছাড়া ভারত ইসরাইলের কাছ থেকে ৩১ কোটি ৬০ লাখ ও আমেরিকার কাছ থেকে ৩০ কোটি ২০ লাখ ডলারের অস্ত্র কিনেছে।

এসআইপিআরআই এর পরিচালক ডক্টর ওদি ফ্লেব্রেন্ট এর মতে মধ্যপ্রাচ্যে গোলযোগ লাগার পর থেকে আমেরিকা বিভিন্ন অস্ত্র ব্যবহারের সুযোগ বেশি পেয়েছে। গত ৫ বছরে আমেরিকা বিশ্বের ৯৬ টি দেশে কোননা কোনো ভাবে অর্থাত বিক্রয় ও দান দুটি উপায়েই অস্ত্র বিলি করে গিয়েছে। তবে রাশিয়া ২০০৬-২০১০ সালের তুলনায় ২০১৪-২০১৫ তে অস্ত্র রপ্তানি কমিয়া এনেছে।

এসআইপিআরআই এর সিনিয়র গবেষক পিটার বেজমান এর মতে আমেরিকার অস্ত্র রপ্তানির তালিকায় বর্তমানে ৯ টি দেশের জন্যে ৬১১ টি শুধুমাত্র কমব্যাট এয়ার ক্রাফটই রয়েছে !

এদিকে , চীনের প্রধান অস্ত্র ক্রেতা পাকিস্তান। চীনের মোট অস্ত্র বিক্রির শতকরা ৩৫ ভাগ অস্ত্র কিনেছে পাকিস্তান। এরপর চীন থেকে বেশি অস্ত্র কেনার তালিকায় রয়েছে বাংলাদেশ ও মিয়ানমার।









Leave a Reply