সিরিয়ার হাসপাতালে কোন হামলা করেনি রাশিয়া : ক্রেমলিন

বিশ্লেষকরা মনে করছে, পশ্চিম এবং তুরস্ক-সৌদি-কাতারের মদদপুস্ট সন্ত্রাসীরা যখন রাশিয়া-সিরিয়ার আক্রমণে কোন ঠাসা হয়ে পড়ছে তখন একটি নো-ফ্লাই-জোন গঠনের মাধ্যমে নতুন করে সন্ত্রাসীদের সহযোগীতা করার চেষ্টায় জনমত গঠনের মাধ্যমে রাশিয়া ও সিরিয়াকে চাপে ফেলার জন্য এধরণের অপপ্রচার চালাচ্ছে তুরস্ক-সৌদি-পশ্চিম জোট।

দিমিত্রি পেসকভ
দিমিত্রি পেসকভ

গতকাল, রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের আবাসিক দপ্তর ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বলেছে সিরিয়ার একাধিক হাসপাতালে বোমাবর্ষণ ও যুদ্ধাপরাধের অভিযোগ কঠোর ভাষায় প্রত্যাখ্যান করেছে রাশিয়া। পেসকভ বলেছে, “যারা এ ধরনের অভিযোগ তুলেছে তারা তাদের দাবির পক্ষে কোনো প্রমাণ তুলে ধরেনি।”

সোমবারে সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে সন্ত্রাসীদের নিয়ন্ত্রিত এলাকায় চারটি হাসপাতালে ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় প্রায় অর্ধশত মানুষ নিহত হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।
তুরস্ক এসব হামলার জন্য সরাসরি রাশিয়াকে দায়ী করেছে । অপরদিকে জাতিসংঘ বলেছে, সরাসরি হাসপাতালে হামলা চালানো যুদ্ধাপরাধের পর্যায়ে পড়ে।

তবে ক্রেমলিনের মূখপাত্র জানিয়েছে, সিরিয়ার সরকারের পক্ষ থেকে যদি কোন প্রমাণ এ ব্যাপারে পেশ করা হয়, রাশিয়া তাকে গ্রহণযোগ্য বলে মনে করবে। এছাড়াও পেশকভ রাশিয়ার কাছে থাকা তথ্যচিত্র অনুযায়ী তুরস্কের দাবির উল্টো কথা প্রমাণ করছে বলে জানায়।

এঘটনার প্রেক্ষিতে, রাশিয়া নিযুক্ত সিরিয়ার রাষ্ট্রদূত রিয়াদ হাদ্দাদ এর আগে তার দেশের উত্তরাঞ্চলের কয়েকটি হাসপাতালে হামলার জন্য সরাসরি আমেরিকাকে দায়ী করেছে। তবে আমেরিকার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বা পেন্টাগন এ অভিযোগ ‘সুস্পষ্ট মিথ্যা’ বলে প্রত্যাখ্যান করেছে।

প্রসংগত, সিরিয়ার হাসপাতালে এমন সময় হামলা ও এ সম্পর্কে পরস্পরবিরোধী অভিযোগ উঠল যখন গত সপ্তাহে রাশিয়াসহ বিশ্ব শক্তিগুলো সিরিয়ায় যুদ্ধবিরতি প্রতিষ্ঠা করতে সম্মত হয়। চলতি সপ্তাহের আরো পরের দিকে এ যুদ্ধবিরতি কার্যকর হওয়ার কথা রয়েছে। এছাড়াও জার্মানীর চ্যান্সেলর এঙ্গেলা মার্কেল সিরিয়া তুরস্কের উত্তর সীমান্তে একটি ‘নো-ফ্লাই-জোন’ গঠনের প্রস্তাব জানিয়েছে।

বিশ্লেষকরা মনে করছে, পশ্চিম এবং তুরস্ক-সৌদি-কাতারের মদদপুস্ট সন্ত্রাসীরা যখন রাশিয়া-সিরিয়ার আক্রমণে কোন ঠাসা হয়ে পড়ছে তখন একটি নো-ফ্লাই-জোন গঠনের মাধ্যমে নতুন করে সন্ত্রাসীদের সহযোগীতা করার চেষ্টায় জনমত গঠনের মাধ্যমে রাশিয়া ও সিরিয়াকে চাপে ফেলার জন্য এধরণের অপপ্রচার চালাচ্ছে তুরস্ক-সৌদি-পশ্চিম জোট।









Leave a Reply